রেলের অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত তৃণমূল বিধায়করা, কটাক্ষ বাবুলের

রেলের অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত তৃণমূল বিধায়করা, কটাক্ষ বাবুলের। so বৃহস্পতিবার রেলের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল স্থানীয় বিধায়কদের। মঞ্চে তাঁদের নাম, নির্দিষ্ট আসন থাকলেও এলেন না কেউই। আর সেই কারণেই তৃণমূল বিধায়কদের আক্রমণ করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। so বললেন, “ওনাদের কাছে সরকারি পদের থেকে দলীয় পদ বেশি প্রিয়।”

গতকাল আসানসোল রেল ডিভিশনের তিনটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছিল। so সকালে পাণ্ডবেশ্বরে টিকিট কাউন্টারের উদ্বোধন, বিকেলে বরাকর স্টেশনে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধন এবং সন্ধ্যায় আসানসোলের লোকো স্টেডিয়ামে খেলার জন্য ফ্লাড লাইটের উদ্বোধন। এই তিনটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেই উপস্থিত ছিলেন আসানসোলের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। পাশাপাশি এই তিনটি অনুষ্ঠানে নাম ছিল রাজ্যের আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক, আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি এবং তৃণমূল বিধায়ক উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়ের। কিন্তু অনুষ্ঠানে তাঁদের নামের নির্দিষ্ট আসনে উপস্থিত ছিলেন না কেউই। এই বিষয়কে কেন্দ্র করেই রাজ্যের তিনজন তৃণমূল বিধায়ককে কটাক্ষ করেন বাবুল।

বাবুল আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারিকে কটাক্ষ করে বলেন, “পাণ্ডবেশ্বরে টিকিট কাউন্টারের উদ্বোধন করলাম। সেই অনুষ্ঠানে এলাকার বিধায়ক তথা আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারির নাম ছিল। কিন্তু তিনি আসেননি। মেয়র ও বিধায়ক দুটোই সরকারি পদ। কিন্তু সরকারি পদের থেকে ওনার কাছে আসানসোলের তৃণমূল জেলা সভাপতির পদ বেশি প্রিয়। তাই মানুষের উপকারে পাণ্ডবেশ্বর স্টেশনে মেশিন বসানোর অনুষ্ঠানে উনি আসেননি। so রাজ্য সরকারের কোনও অনুষ্ঠানে কিন্তু আমরা নাম থাকে না। ডাকাও হয় না। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের সমস্ত অনুষ্ঠানে এলাকার বিধায়ক ও সাংসদদের নিমন্ত্রণ করি।”

আসানসোল উত্তরের বিধায়ক মলয় ঘটককে কটাক্ষ করে বাবুল বলেন, “মলয় ঘটক আইনমন্ত্রী। একটা জিনিসের উদ্বোধন হচ্ছে। সেখানে যদি উনি থাকতেন তাহলে ওনার পদমর্যাদা নিয়েই থাকতেন। কোনও অনুঘটক হয়ে থাকতেন না। মলয় ঘটক হয়েই থাকতেন।” পাশাপাশি কুলটির তৃণমূল বিধায়ক উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে বলেন, ” বরাকরেও উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়ের নাম ছিল। কিন্তু উনি আসেননি। ওনার কাছে সরকারি যে বিধায়ক পদ তা তুচ্ছ মনে হয়েছে।”so

so কেন্দ্রীয় সরকারের অনুষ্ঠানে রাজ্যে সরকারের মন্ত্রী ও বিধায়কদের গরহাজিরা প্রসঙ্গে বাবুল বলেন, “রাজনীতির গণ্ডির মধ্যে নিজেদের আটকে রেখে আমরা দেশের ও জনতার ক্ষতি করছি  কিন্তু আপনাদের কাছে পৌঁছানোর আমার যে নিরলস প্রচেষ্টা তা সবসময়ই থাকবে। ওনারা এলে খুবই ভালো হতো। so আমাকে দেখতে খুব একটা খারাপ নয়। কিন্তু তাও কেন এলো না বুঝতে পারছি না। হয় আমার ভয়ে আসেনি, নয় আপনাদের ভয়ে আসেনি।” রেলের অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত তৃণমূল বিধায়করা, কটাক্ষ বাবুলের।

so

The post রেলের অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত তৃণমূল বিধায়করা, কটাক্ষ বাবুলের appeared first on Gerua Bangla.

ক্লিক করে পড়ুন ‘সাতসকাল’ ই-খবরের কাগজ

The post satsakal 06-05-2021 appeared first on satsakal.com.