হকি ইন্ডিয়ার উপর ক্ষুব্ধ কেন্দ্রীয় সরকার

আগামী বছর ইংল্যান্ডের মাটিতে বসতে চলেছে কমনওয়েলথ গেমসের আসর। তবে সেখানে অংশ নেবে না ভারতীয় হকি দল। কারণ, ব্রিটিশ সরকারের করোনা বিধি মানতে নারাজ হকি ইন্ডিয়া। তাই দিন কয়েক আগেই নাম প্রত্যাহার করে নেওয়ার কথা জানায় তারা।

কিন্তু এই ঘটনার জেরে দেশের হকি সংস্থার ওপর বেজায় চটেছে কেন্দ্র সরকার। কোনওরকম আলোচনা না করেই হকি ইন্ডিযার এমন সিদ্ধান্তকে একদমই ভালোভাবে নিচ্ছে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রক। বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর।

ইংল্যান্ডে বাড়তে থাকা কোভিডের কথা মাথায় রেখে কমনওয়েলথ গেমস থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিল হকি ইন্ডিয়া। তবে শুধু এই কারণেই নয়, কমনওয়েলথ গেমস শুরুর ৩২ দিন পর শুরু হবে এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। এই প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হলে সরাসরি প্যারিস অলিম্পিক্সের ছাড়পত্র পেয়ে যাবে ভারত। সেই কারণেই এশিয়ান কাপে খেলার ব্যাপারে বেশি উৎসাহী ছিল হকি ইন্ডিয়া।

তবে হকি ইন্ডিয়ার যুক্তি পুরোপুরি মেনে নিতে পারছেন না অনুরাগ। আইপিএল -এর উদাহরণ টেনে অনুরাগ বলেন, ”হকিতে ভারতের প্রতিভার অভাব নেই। ক্রিকেটের দিকে দেখলে দেখা যাবে, এখন আইপিএল চলছে। কিছুদিন পরেই টি২০ বিশ্বকাপ। ক্রিকেটাররা যদি পরপর দুটো প্রতিযোগিতায় খেলতে পারে তবে হকি খেলোয়াড়রা পারবে না কেন? আমি বুঝতে পারছি এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খুব গুরুত্বপূর্ণ। তবে ভারতীয় দল কোন প্রতিযোগিতায় খেলবে তা ঠিক করার দায়িত্ব সংশ্লিষ্ট সংস্থার নয়, কেন্দ্রীয় সরকারের।’