শ্রীলঙ্কা সফরে কোচ দ্রাবিড়, জোড়ালো জল্পনা

দ্বীপরাষ্ট্র সফরে শাস্ত্রীর অনুপস্থিতিতে ভারতীয় দলের কোচ হতে পারেন রাহুল দ্রাবিড় .জুলাইতে একদিকে যেখানে ইংল্যান্ডে থাকবেন বিরাট কোহলিরা, ঠিক সেই সময়ই অন্যদিকে আরেক ভারতীয় দল যাবে শ্রীলঙ্কায়। আর এখানেই উঠছে প্রশ্ন, তাহলে লঙ্কাবাহিনীর বিরুদ্ধে হার্দিক পাণ্ডিয়াদের ভারতের কোচ হিসেবে কে যাবেন? কারণ রবি শাস্ত্রী তো তখন ইংল্যান্ডে থাকবেন কোহলি অ্যান্ড কোংয়ের সঙ্গে। শ্রীলঙ্কায় ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভারতীয় দলের কোচের ভূমিকায় তাই সর্বাগ্রে নাকি নাম উঠে আসছে মিস্টার ডিপেন্ডেবলেরই। এক্ষেত্রে দ্রাবিড়ের সঙ্গে যেতে পারেন জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির সাপোর্ট স্টাফরা। যদিও বোর্ডের তরফে এখনও পর্যন্ত এ নিয়ে কোনও আপডেট দেওয়া হয়নি। ভারতীয়-এ এবং অনূর্ধ্ব-১৯ ভারতীয় দলকে সফলতার সঙ্গে কোচিং করানোর পর টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচ হিসেবে ভাবা হয়েছিল দ্রাবিড়কে। কিন্তু ভারতীয় দলের কোচ হিসেবে দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করেছিলেন তিনি। এরপর জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমির ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব নেন দ্রাবিড়।

দ্বীপরাষ্ট্রে ভারত ৩ ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজে এবং ৩ ম্যাচের টি-২০ সিরিজ খেলবে। তিনটি ওয়ান ডে ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে ১৩, ১৬ ও ১৯ জুলাই। আর টি-২০ ম্যাচগুলি হবে যথাক্রমে ২২, ২৪ ও ২৭ জুলাই। জানা গিয়েছে, নির্দিষ্ট সময়ে শ্রেয়স আইয়ার ফিট না হয়ে উঠলে দ্বীপরাষ্ট্রে নেতৃত্বের দাবিদার শিখর ধাওয়ান এবং হার্দিক পান্ডিয়া। বোর্ডের এক শীর্ষস্থানীয় কর্তা জানিয়েছেন, ‘শ্রীলঙ্কা সফরের আগেই শ্রেয়স আইয়ার পুরোপুরি ম্যাচ ফিট হতে পারবে কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। সাধারণত বড় মাপের অস্ত্রোপচারের পরে পর্যাপ্ত রেস্ট নিতে হয়। তারপর রিহ্যাব করে ম্যাচ ফিট হতে সময় লাগে কমপক্ষে চার মাস। শ্রেয়স যদি থাকত, তাহলে অটোমেটিকভাবে ও-ই নেতৃত্ব পেত। ‘আর শ্রেয়সের অনুপস্থিতিতেই উঠে এসেছে হার্দিক পান্ডিয়া এবং ধাওয়ানের নাম। ৩৫ বছরের ধাওয়ান অসমাপ্ত আইপিএলে দুরন্ত ছন্দে ছিলেন। শ্রীলঙ্কায় যাঁরা খেলতে যাচ্ছে, তাঁদের মধ্যে সবথেকে সিনিয়র ধাওয়ান। তাছাড়া গত আইপিএলের সঙ্গে এই আইপিএলেও দুরন্ত ছন্দে ছিল ও। নেতৃত্বের অন্যতম দাবিদার ধাওয়ান। গত আট বছর ধরেই জাতীয় দলের হয়ে ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করে চলেছে ও. প্রাক্তন উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান দীপ দাশগুপ্ত বলেন, “স্বাভাবিক যে, বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, কেএল রাহুল এই সময় থাকবেন না। ওই দলের উপলব্ধ থাকা সবচেয়ে সিনিয়র খেলোয়াড় শিখর ধবন, এই কারণে আমার মনে হয় যে শিখর অধিনায়কত্বের সবচেয়ে সঠিক বিকল্প। এটা যথেষ্ট ইন্টারেস্টিং প্রশ্ন যে শ্রীলঙ্কা সফরে কে ভারতীয় দলের অধিনায়ক হবেন। আমাদের অধিনায়কের বিকল্প হিসেবে ভুবনেশ্বর কুমারকেও ভোলা উচিত নয়। যদি ও ফিট থাকে আর শ্রীলঙ্কা যায় তো ও-ও অধিনায়কের একটি উচিত বিকল্প হতে পারে”। পৃথ্বী শ, ঈশান কিষান, হার্দিক, ক্রুনাল, সাইনি, দীপাক চাহার, কুলদীপ যাদবদের সুযোগ দিয়ে দেখে নিতে চায় বোর্ড। তবে অধিনায়ক যিনিই হোন, সেটা বড় কথা নয়। আসল হচ্ছে জিতে ফেরা। সেই লক্ষ্যেই দ্বীপরাষ্ট্র রওনা দেবে ভারতের দ্বিতীয় সারির দল। প্রথম সারির দল ইংল্যান্ডে কী করল, সেটা যেমন লক্ষ্য রাখবে বোর্ড, তেমনই শ্রীলঙ্কায় সাদা বলের বিশেষজ্ঞ ক্রিকেটাররা কেমন পারফর্ম করল, নজর থাকবে সেদিকেও।

ক্লিক করে পড়ুন ‘সাতসকাল’ ই-খবরের কাগজ

The post satsakal 15-06-2021 appeared first on satsakal.com.