দলবিরোধী মন্তব্যের জেরে তন্ময় ভট্টাচার্যকে শোকজ করল বাম নেতৃত্ব

গণেশ চন্দ্র (কলকাতা): একুশের ভোটে গোহারা হেরেছে সিপিএম। ৩৪ বছরের ক্ষমতাসীন জোটের নেতৃত্বে থাকা দলের কপালে এবার একটি আসনও জোটেনি। কেন এই বিপর্যয়, তা ঘিরে দলের অন্দরেই নানা মুনির নানা মতমত। দলের খারাপ ফলাফলের জন্য গণনার দিন সন্ধ্যায় এক সংবাদ মাধ্যমে দলের নেতাদের বিরুদ্ধে রীতিমতো তোপ দাগেন সিপিএমের বর্ষিয়ান নেতা তন্ময় ভট্টাচার্য। দলের নেতাদের ‘মানুষের রায়কে সম্মান’ করার কথা বলেন তিনি। আর তারপরই শৃঙ্খলাবদ্ধ দলে হুলুস্থুল পড়ে যায়।

বুধবার দলবিরোধী মন্তব্য করার জন্য তাঁকে শোকজ করল সিপিএমের উত্তর ২৪ পরগনা জেলা কমিটি। চিঠিতে জেলা কমিটির তরফে উল্লেখ করা হয়েছে, তন্ময়বাবুর মতামত ব্যক্তিগত। দল তা অনুমোদন করে না। কেন দল বিরোধী মন্তব্য তার জন্য তন্ময়বাবুকে জবাবদিহি করতে হবে। প্রয়োজনে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে দমদম উত্তর কেন্দ্র থেকে বিধায়ক নির্বাচিত হয়েছিলেন তন্ময় ভট্টাচার্য। এবারও ওই কেন্দ্র থেকেই ভোটের লড়ে তৃণমূলের চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের কাছে পরাজিত হন এই বাম নেতা।

ভোটে শোচনীয় হারের পর তন্ময়বাবু বলেছিলেন যে, ‘এই হারের দায় আমার বা অন্য কোনও বাম প্রার্থীর নয়। সার্বিকভাবে বামেদের প্রত্যাখ্যান করেছে মানুষ। তাই এই বিপর্যয়ের দায় নিতে হবে দলের শীর্ষনেতৃত্বকে। লোকসভা নির্বাচনে যারা দলকে শূন্য করেছে তারা কোনও দায় নেয়নি। এবার বিধানসভাতেও দল শূন্য হয়েছে। এবার একথা – সেকথা বলে দায়িত্ব এড়ালে চলবে না। দলীয় নেতৃত্বের একাংশ বলে আমরা ভোটে হারজিত নিয়ে চিন্তিত নই। আমরা রাস্তায় আছি। আমাদের দল সংসদীয় রাজনীতিকে গ্রহণ করেছে। সেখানে হারজিতের ওপরেই প্রাসঙ্গিকতা নির্ভর করে। যে নেতারা রাস্তায় থাকার কথা বলতেন তাদের হাতে একটা ফুটো বাটি ধরিয়ে রাস্তায় নামিয়ে দিয়েছে জনতা।

ক্লিক করে পড়ুন ‘সাতসকাল’ ই-খবরের কাগজ

The post satsakal 15-06-2021 appeared first on satsakal.com.