শ্রমিকদের স্বার্থরক্ষায় বাম-বিজেপি একমত, তৃণমূল কোন রাস্তায় হাঁটবে?

এক জাতি এক বেতন দিবস, বাম-বিজেপি একমত, তৃণমূল কোন রাস্তায় হাঁটবে? প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলের

শ্রমিকদের স্বার্থরক্ষায় বাম-বিজেপি একমত, তৃণমূল কোন রাস্তায় হাঁটবে? বাম-বিজেপির মধ্যে মতানৈক্য থাকলেও, শ্রমিকদের স্বার্থে কিন্তু দুদলই এক মেরুতে অবস্থান করে। শ্রমিকদের স্বার্থ রক্ষা করতে মোদি সরকার নতুন কিছু চিন্তাভাবনা করছে। শ্রমিকদের কথা ভেবে এবার এক জাতি এক বেতন দিবস ঘোষণা করার পরিকল্পনা করেছে কেন্দ্র সরকার। পাশাপাশি নির্ধারণ করতে চায় নূন্যতম মজুরি। উল্লেখ্য, শ্রমিকদের নূন্যতম মজুরির জন্য দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করেছে বামপন্থীরা। তাঁদের দাবি, অভিন্ন ন্যূনতম মজুরি ১৮ হাজার টাকা করতে হবে।

এই প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রীর সন্তোষ গাঙ্গুয়ার বলেন, গোটা দেশে বিভিন্ন সেক্টরে একদিনে বেতনের ব্যবস্থা করতে চায় সরকার। শ্রমজীবী মানুষ যাতে নির্দিষ্ট দিনে বেতন পায়, পাশাপাশি কোনও শ্রমিক যাতে প্রাপ্য বেতন থেকে বঞ্চিত না হয় তার জন্যেই এই এক জাতি এক বেতন দিবস আইন পাশ করাতে চায় মোদি সরকার। একই সঙ্গে সারাদেশে অভিন্ন ন্যূনতম মজুরিও ঠিক করতে চাইছে সরকার। এর ফলে শ্রমিকদের উন্নত জীবনযাপনের সাহায্য হবে বলে মনে করেন শ্রমমন্ত্রী।

আরও পড়ুন: নোটবন্দীর তৃতীয়বর্ষে মোদিকে আক্রমণ মমতার

চলতি বছরের ২৩ জুলাই ও এসএইচ কোড লোকসভায় পেশ করা হয়েছিল। ফলে স্বাস্থ্যসুরক্ষা ও কাজের শর্ত নিয়ে তেরোটি কেন্দ্রীয় শ্রম আইন একসঙ্গে কার্যকর হয়ে যাবে। সঙ্গে এসএইচ কোড অনুযায়ী শ্রমিককে আবশ্যিকভাবে তার নিয়োগপত্র দিতে হবে। পাশাপাশি বছরে মেডিক্যাল চেকআপ-এরও ব্যবস্থা করতে হবে।

এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রী বলেন, ২০১৪-য় বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর থেকেই মোদি সরকার শ্রম আইন সংস্কারের কাজ করে চলেছে। ৪৪টি জটিল শ্রম আইন সরলীকরণের উদ্যোগ নিয়েছে মোদি সরকার। তবে রাজনৈতিক মহলে প্রশ্ন উঠছে বিজেপি-র এই সিদ্ধান্তে বামপন্থীরা সমর্থন করলেও, রাজ্য সরকার কী ভূমিকা পালন করবে? রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের প্রশ্ন এই বিষয় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংঘাতে যাবেন নাকি তাঁর প্রস্তাবকে পূর্ণ সমর্থন জানাবেন? বিশেষজ্ঞদের একাংশের দাবি মুখ্যমন্ত্রী হয়তো এই বিষয়ে মোদি সরকারকেই সমর্থন করবেন। কারণ বিষয়টা শ্রমিকদের। আসন্ন নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে, ভোটব্যাংকের কথা মাথায় রেখে এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর মোদি সরকারের সঙ্গে সংঘাতে যাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম বলে মনে করছেন তাঁরা। তবে বিষয়টা যেহেতু মমতা আর মোদি তাই একটা প্রশ্নচিহ্ন থেকেই যাচ্ছে।

ক্লিক করে পড়ুন ‘সাতসকাল’ ই-খবরের কাগজ

The post satsakal 12-05-2021 appeared first on satsakal.com.