২৪ মাস পর ডার্বির রং আবার সবুজ-মেরুন

মোহনবাগান-২ (বেইতিয়া, পাপা) | ইস্টবেঙ্গল-১ (মার্কোস)

২৪ মাস পর আবার ডার্বির রং সবুজ-মেরুন। রবিবার সল্টলেক স্টেডিয়ামে ইস্টবেঙ্গলকে ২-১ গোলে হারিয়ে আই লিগের শীর্ষস্থান ধরে রাখল কিবু ভিকুনার দল। আর মোহন অপেরার ব্যান্ড মাস্টার হয়ে উঠলেন জোসেবা বেইতিয়া।

রবিবার লড়াই ছিল দুই স্পেনীয় কোচের। সেখানে আলেয়ান্দ্রোকে বাজিমাত করে শেষ হাসি হাসলেন কিবু ভিকুনাই। মোহনবাগানের হয়ে এদিন গোল করে যান পাপা দিওয়ারা ও বেইতিয়া। অন্যদিকে, ইস্টবেঙ্গলের একটি গোল মার্কোসের।

ম্যাচের শুরু থেকেই এদিন আক্রমণাত্মক ফুটবল উপহার দিচ্ছিল সবুজ মেরুন ফুটবলাররা। চাপের কাছে শুরু থেকেই নতি স্বীকার করে নিয়েছিলেন লাল হলুদ ফুটবলাররা। এদিন প্রথম ৪৫ মিনিট দর্শকের ভূমিকায় দেখা গেল কমলপ্রীত মেহেতব সিংদের। বল ধরলেই লাল হলুদ ডিফেন্সে ত্রাসের সঞ্চার করছিলেন বেইতিয়া। ১৯ মিনিটেই বেইতিয়া গোল করে মোহনবাগানকে এগিয়ে দেন।

কমলপ্রীত ডার্বির শুরুতেই ফ্লপ। তাঁকে বোকা বানিয়েই নওরেম সেন্টার করেছিলেন। সেই বল রিসিভ করেই গোলে বল ঠেলেন বেইতিয়া। কার্যত ফাঁকায় গোল করেন বেইতিয়া। ইস্টবেঙ্গলের ডিফেন্ডাররা তাঁকে মার্ক করতেই ভুলে গিয়েছিলেন। মোহনবাগান এদিন স্প্যানিশ ঘরানাতেই ছোট ছোট পাসে আক্রমণে উঠছিল। প্রথমার্ধে অন্তত তিন গোলে এগিয়ে জেতে পারত বাগান। কিন্তু ১-০ গোলে এগিয়ে সাজঘরে ফেরেন গঞ্জালেসরা। দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই খেলায় ফেরার চেষ্টা করেন কাসিম কোলাডোরা। তবে গতির বিরুদ্ধে গিয়ে। ৬৫ মিনিটে পাপা দিওয়ারা গোল করে ২-০ করে দেন। বেইতিয়া কর্ণার করেছিলেন। সেখান থেকে হেডে গোল করেন পাপা। এটাই মোহনবাগান জার্সিতে তাঁর প্রথম গোল।

গোল খেয়ে খোচা খাওয়া বাঘ হয়ে উঠে লাল হলুদ। ৭১ মিনিটে মার্কোস গোল করে স্কোর ২-১ করেন। অ্যাসিস্ট এডমুন্ডের। এরপরে ইস্টবেঙ্গলের আরও একটি জোরালো আক্রমণ বারপোস্টে লেগে প্রতিহত হয়। শট নিয়েছিলেন হুয়ান মেরা। না হলে এদিন খারাপ খেলেও ড্র রেখে মাঠ ছাড়তে পারতেন। তবে ওই একটিবার ছাড়া ভুল করেননি বাগান ডিফেন্ডররা।

ডার্বির আগেই টানা দু-ম্যাচ হেরে বসেছিল ইস্টবেঙ্গল। চার্চিল ও গোকুলমের কাছে হেরে ভাগ্যের চাকা ওলটানোর জন্য ডার্বি-জয়কেই পাখির চোখ করেছিলেন আলেয়ান্দ্রো। তবে তাঁর ভাগ্যটাই খারাপ। এদিনের হারে ইস্টবেঙ্গলে কোন্দল যে আরও বাড়বে, তাতে সন্দেহ নেই।

ম্যাচ দেখতে হাজির ছিলেন সঞ্জীব গোয়েঙ্কা। ম্যাচের মতো গ্যালারিও রঙিন থাকল দুই দলের বার্তাবাহী টিফো ব্যানারে।

ক্লিক করে পড়ুন ‘সাতসকাল’ ই-খবরের কাগজ

The post satsakal 08-05-2021 appeared first on satsakal.com.