শাশুড়িকে গণধর্ষণ, অভিযুক্ত জামাই ও তার দুই বন্ধু গ্রেপ্তার

বাবু সিদ্ধান্ত (বর্ধমান): বন্ধুদের সঙ্গে নদীর চরে জোরপূর্বক শাশুড়িকে গণধর্ষনের অভিযোগ উঠলো জামাইয়ের বিরুদ্ধে। জামাইয়ের এই কুকীর্তির কথা জানাজানি হতেই বুধবার সকাল থেকে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রাম সংলগ্ন ভাতকুন্ডায়। নির্যাতিতা মহিলা তাঁর জামাই সহ তিনজনের বিরুদ্ধে গণধর্ষন ও মারধোরের অভিযোগ দায়ের করেন। দায়ের হওয়া অভিযোগের ভিত্তিতে আউসগ্রাম থানার পুলিশ তিনজনকেই গ্রেপ্তার করেছে। অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন নির্যাতিতা ও তাঁর প্রতিবেশীরা।

পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের নাম সজল বাউড়ি, বাবু বাগদি এবং গৌড় বাউড়ি। তিনজনেরই বাড়ি আউশগ্রামের আদুরিয়া গ্রামে। ধৃতদের মধ্যে সজল বাউড়ি নির্যাতিতার জামাই। সুনির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ তিন ধৃতকেই বুধবার পেশ করে বর্ধমান আদালতে। তদন্তের প্রয়োজনে ধৃতদের নিজেদের হেপাজতে নিতে চেয়ে আদালতে আবেদন জানান তদন্তকারী অফিসার। বিচারক তিন ধৃতকেই ৪ দিন পুলিশি হেপাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ভাতকুন্ডা নিবাসী নির্যাতিতা একজন বিধবা। তিনি জনমজুরের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। তাঁর তিনি মেয়ে ও এক ছেলে বিবাহিত। রক্ষাকালি পুজো দেখতে যাওয়ার জন্য আত্মীয়ের নিমন্ত্রণ পেয়ে গত সোমবার ওই মহিলা ভাতকুণ্ডার নিকটস্থ পরিষা গ্রামে গিয়ে ছিলেন। ওই দিন রাত প্রায় ১০টা নাগাদ মহিলা তাঁর আত্মীয় ও পরিচিতদের সঙ্গে কালিপুজো তলার মেলায় ঘুরছিলেন। তখনই সেখানে মহিলার সঙ্গে দেখা হয়ে যায় তাঁর ছোট জামাই সজলের। নাতনির শরীর খারাপ হওয়ার কথা মেলাতলাতেই জামাই সজল তাঁর শাশুড়িকে জানায়। তা শুনে মহিলা মনকষ্ট পেয়ে নাতনিকে দেখতে যাওয়ার জন্য জামাইয়ের মোটর বাইকে চাপেন। জামইয়ের অপর এক বন্ধু বাবু বাগদি অন্য বাইকে চাপে। মহিলার অভিযোগ ভাতকুণ্ডার অদূরে কুনুর নদীর চরের কাছে পৌছাতেই তিনি দেখেন জামাইয়ের অপর বন্ধু গৌড় সেখানে অপেক্ষা করছে। জামাই ও তাঁর দুই বন্ধু এরপর জোর করে তাঁকে টানতে টানতে সেখানকার নির্জন জায়গায় নিয়ে যায়। সেখানে ওই তিন জন তাঁকে পর পর ধর্ষণ করে। এরপর মহিলাকে ওই নির্জন জায়গায় ফেলে রেখে যুবকরা পালায় বলে অভিযোগ। কোন রকমে সেখান থেকে উঠে মহিলা আত্মীয় বাড়িতে ফিরে জামাই ও তাঁর বন্ধুদের কুকীর্তির কথা জানায়। পরে মঙ্গলবার নির্যাতিতা তাঁর জামাই সহ তিনজনের বিরুদ্ধে আউসগ্রাম থানায় অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ ওই রাতেই তিনজনকে গ্রেপ্তার করে।

ক্লিক করে পড়ুন ‘সাতসকাল’ ই-খবরের কাগজ

The post satsakal 08-05-2021 appeared first on satsakal.com.