চারিদিকে প্রতিবাদের আগুন জ্বলছে, অন্যদিকে শীতের দিনে বাজার আগুন, মানুষকে ভুলিয়ে রাখতেই কি এত কিছু ঘটছে?    

নরেন্দ্রনাথ কুলে: চারিদিকে প্রতিবাদের আগুন জ্বলছে, অন্যদিকে শীতের দিনে বাজার আগুন, মানুষকে ভুলিয়ে রাখতেই কি এত কিছু ঘটছে? পারদ নামিতেছে। বাতাস ঠান্ডা হইতেছে। তবু চারিপাশ ঠান্ডা হইতেছে না। কারণ প্রতিবাদের আগুনে মৃত্যু মিছিল চলিতেছে। এই মৃত্যুর জন্য কাহারও দুঃখ  হইতেছে কি? তবে কর্ণাটকের এক মন্ত্রী বলিয়াছেন, সংখ্যাগুরুর ধৈর্যের বাঁধ ভাঙিয়া গেলে, আর এক গোধরা কান্ড ঘটাইতে পারে। রাষ্ট্রের এই আইনকে অমান্য করিবার নামে অশান্তি বরদাস্ত করা হইবে না। আবার এক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেখিবা মাত্রই গুলি করিবার আদেশ দিয়াছেন। মন্ত্রীদ্বয় এই কথাগুলি বলিয়া শান্তি রক্ষা করার কথা কি বলিয়াছেন? কিন্তু শান্তি ফিরিতেছে না। so

so এই শীতল দিবসে বাজারে আগুন জ্বলিতেছে। তবু মানুষ গরম হইতেছে না। কিন্তু দরিদ্র মানুষের উদর জ্বলিতেছে। অবশ্য এই জ্বলনও যে জ্বলন্ত সমস্যা তাহা ভুলিয়া গিয়াছে মানুষ। এই সমস্যা হইতে আরও বড় সমস্যা যে অস্তিত্ব রক্ষার সমস্যা। অস্তিত্ব যদি নাইবা থাকে, তাহা হইলে বাজারের আগুনে পুড়িয়া কি লাভ? তাই বাজারে আগুন ভুলিয়া থাকিলে চলিবে। আধাপেটা খাইলে চলিবে, কিন্তু শান্তিতে থাকিতে হইবে।এই শান্তিতে থাকিতে গেলে দেশকে শত্রুর হাত হইতে রক্ষা করার জন্য যাহা দরকার তাহাই মানিয়া লওয়া উচিত। তাহাই কেমনে সকলে বুঝিয়াও যায়। so

আরও পড়ুন: সিবিআইয়ের তলব প্রাক্তন পুলিশ কমিশনারকে

সেরকমই এই দেশে বহু অযাচিত মানুষ আছে, কেমনে আছে তাহা প্রশ্ন সাপেক্ষ, যাহাদের জন্য সুখ ও শান্তি নাকি নষ্ট হইতেছে। কিন্তু এই কথা অনেকেই মানিয়া লইতে পারে নাই।  মানিয়া না লওয়ার পরিবেশ এমন সৃষ্টি হইল, যেখানে বাজারের আগুন গৌণ হইয়া গেল। আর মানুষ ভুলিয়া গেল তাহাদের জ্বলন্ত সমস্যা। জ্বলন্ত সমস্যা মানুষ ভুলিয়া থাকিলে লাভ কাহাদের হয়?  চারিদিকে প্রতিবাদের আগুন জ্বলছে, অন্যদিকে শীতের দিনে বাজার আগুন, মানুষকে ভুলিয়ে রাখতেই কি এত কিছু ঘটছে?    

ক্লিক করে পড়ুন ‘সাতসকাল’ ই-খবরের কাগজ

The post satsakal 08-05-2021 appeared first on satsakal.com.