করোনা বিপর্যয়ে রুখতে কেন্দ্র ও রাজ্যের বিশেষ সতর্কতা জারি

অভিজিৎ ভদ্র: করোনায় আতঙ্ক নয়, চাই সচেতনতাl সর্দি-কাশি-জ্বর ইনফ্লুয়েঞ্জা এই ধরনের যে কোনও উপসর্গ দেখা দিলে অবহেলা না করে নিকটবর্তী স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যাওয়ার পরামর্শ দিচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (W.H.O. ) ।কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তর করোনা বিষয়ক একটি হেল্পলাইন চালু করেছে- 01123978046 এবং email – ncob2019@gmail.com

রাজ্য স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তর করোনা সংক্রমণ যাতে না হয় সে বিষয়ে বিশেষ সর্তকতা জারি করেছে।  ১৬ মার্চ  থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সরকারি, বেসরকারি মাদ্রাসা, সহ সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। এক জায়গায় বহুল মানুষের জমায়েত যাতে না হয় সেদিকে দৃষ্টি রাখা হয়েছে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের হার বেড়ে যাওয়ার ফলে পুরভোটের প্রবল অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।  ট্রেনেও যাত্রীদের  বারংবার সর্তকতা করছে রেল কর্তৃপক্ষ।  করমর্দন না করার জন্য জানাচ্ছেন,  হাঁচি-কাশি থেকে যাতে কোনও  সংক্রমণ না ছড়ায় সেদিকে নজর রাখতে বলছেন। মোবাইল সংস্থাগুলি রিংটোন-এর পরিবর্তে করোনা  ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে সচেতনতামূলক প্রচার টোন চালু করেছে।মাস্ক ব্যবহার করতে বলছেন সরকারি-বেসরকারি প্রত্যেকটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা।

অন্যদিকে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী হর্ষবর্ধন আক্রান্ত ব্যক্তিকেই মাস্ক ব্যবহার করতে বলছেন,  সকলের প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেনl  এ পর্যন্ত ভারতে নোবেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ৪৪ জন এবং মৃতের সংখ্যা ২।  রাজ্য সতর্কতামূলক ব্যবস্থারূপে ১৬ মার্চ থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখছে কলকাতা মিউজিয়াম,  ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল হলের মিউজিয়াম,  বিড়লা তারামণ্ডল,  সায়েন্স সিটি, আমেরিকান সেন্ট্রাল লাইব্রেরি। চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করেছেন।

আরও পড়ুন: করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের খরচ বহন করবে বীমা কোম্পানি, নির্দেশিকা জারি কেন্দ্রীয় সরকারের

বিশ্বভারতী বিদেশি পড়ুয়া ব্যতীত সকলকে হোস্টেল খালি করার নির্দেশ দিয়েছে। সূত্রের খবর চিনের সামুদ্রিক মাছ থেকে করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি। পশু থেকে মানুষের মধ্যে সংক্রমণ,  মানুষ থেকে মানুষে প্রবল সংক্রমিত।  কেন্দ্র বিজ্ঞপ্তি জারি করে করোনা ভাইরাসকে “বিপর্যয়” আখ্যা দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *