দেশের আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী চিন্তিত নন: স্টিভ হাঙ্কে

দেশের আর্থিক পরিস্থিতি ছেড়ে জাতি-ধর্ম নিয়েই প্রধানমন্ত্রী বেশি মাতামাতি করছেন: মার্কিন অর্থনীতিবিদ

দেশের আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী চিন্তিত নন: স্টিভ হাঙ্কে। সম্প্রতি এনআরসি এবং সিএএ নিয়ে রাজ্য রাজনীতি উত্তাল। একপক্ষ মোদিকে সমর্থন করছে তো একপক্ষ মোদির বিরোধীতায় এবং এনআরসি এবং সিএএ বন্ধের দাবিতে আন্দোলন, প্রতিবাদ, বিক্ষোভে সামিল হয়েছে। এই নিয়ে প্রায় প্রতিদিনই নেতা মন্ত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষও পথে নামছেন। তবে এই ব্যাপারটাকে ভালোভাবে দেখছেন না মার্কিন অর্থনীতিবিদ স্টিভ হাঙ্কে। তাঁর মতে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দেশের অর্থনীতি নিয়ে মোটেই চিন্তিত নন। যে সময় অর্থনীতি নিয়ে চিন্তাভাবনা করার প্রযোজন সেই সময় তিনি জাত-ধর্ম নিয়ে বেশি মাতামাতি করছেন। তাঁর এই মন্তব্য করার পেছনে যথেষ্ট যুক্তিসঙ্গত কারণ রয়েছে। কারণ বর্তমানে দেশের জিডিপি ৪.৫ শতাংশ। এখানে অন্যান্য প্রতিবেশী দেশগুলির থেকে ভারত অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে বলে মনে করছেন মার্কিন অর্থনীতিবিদ। পাশাপাশি তিনি মনে করছেন চলতি আর্থিক বছরে জিডিপি বৃদ্ধির হার পাঁচ শতাংশর মধ্যে ধরে রাখতে চাপের মুখে পড়তে হবে ভারতকে। so

আরও পড়ুন: হাইকোর্টের কড়া নির্দেশ! চিন্তায় মুখ্যমন্ত্রী

so ভারতের অর্থনীতির খারাপ পরিস্থিতির কারণ হিসাবে তিনি মনে করছেন, একটা সময় ভারতের অর্থনীতিতে প্রচুর ঋণের বোঝা ছিল। সেইগুলো জমে জমে অনাদায়ী ঋণের পরিমাণ এতোটাই বেড়ে গিয়েছে যে সেই কারণে রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাংকগুলো এখন সমস্যা পড়েছে। মার্কিন অর্থনীতিবিদের মতে, ঋণ সংকোচনের কারণেঅই ভারতের অর্থনীতির এই হাল হয়েছে। আর সেই কারণেই চলতি বছরে জিডিপি বৃদ্ধির হার ৫ শতাংশ ধরে রাখতে ভারতকে হিমশিম খেতে হবে বলে মনে করছেন তিনি। মার্কিন অর্থনীতিবিদ ভারতের এই আর্থিক পরিস্থিতির জন্য সরাসরি মোদিকেই দায়ী করেছেন। so

so পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, এই আর্থিক পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কড়া অর্থনৈতিক পদক্ষেপ নেওয়া উচিত। কিন্তু তিনি এখনও পর্যন্ত সেইরকম কিছু পদক্ষেপ নেননি, যাতে ভারতের আর্থিক পরিস্থিতি সংকট কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে পারে। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, মোদি সরকার এখন কেবলমাত্র দুটো বিষয়ের প্রতি নজর রেখেছে। সেটা হল জাতি ও ধর্ম। এই দুটি ইস্যু বর্তমানে রাজনৈতিক পরিস্থিতিকে অস্থিরতার মুখে ফেলেছে। তিনি মনে করেন, ভারত সংরক্ষণবাদী রাষ্ট্র। এতদিন ভারত অর্থনীতির দিক থেকে যথেষ্ট উন্নত ছিল। অথচ এখন জিডিপি কমতে কমতে ৪.৫ শতাংশতে এসে দাঁড়িয়েছে। আর জিডিপির পরিমাণ কমার কারণ হিসাবে তিনি মনে করছেন দেশে বিনিয়োগ অনেকটাই কমেছে। ফলে আয়ের পরিমাণও অনেকটাই কমেছে। নতুন কাজের সুযোগও অনেক কমেছে। এই অবস্থায় মোদি সরকার দেশের অর্থনীতি নিয়ে চিন্তা না করে কীভাবে জাতি-ধর্ম নিয়ে মেতে রয়েছেন সেই বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মার্কিন অর্থনীতিবিদ স্টিভ হাঙ্কে। so

ক্লিক করে পড়ুন ‘সাতসকাল’ ই-খবরের কাগজ

The post satsakal 12-05-2021 appeared first on satsakal.com.