পরিবহন শ্রমিকদের সুরক্ষার দাবি শ্রমিক ইউনিয়নের

শাস্তি নয়, সুরক্ষার আইন চান চালক ও শ্রমিকরা

পরিবহন শ্রমিকদের সুরক্ষার দাবি শ্রমিক ইউনিয়নের। শাস্তি নয়, বরং গাড়িচালক ও পরিবহন শ্রমিকদের সুরক্ষার আইন প্রণয়নের দাবি জানিয়েছে ঢাকা জেলা ট্যাক্সি, ট্যাক্সি কার, অটোটেম্পু, অটোরিকশা চালক শ্রমিক ইউনিয়ন। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত সমাবেশে এ দাবি জানায় সংগঠনটি।

so সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮-র ধারাসমূহ সংশোধন, ঝুঁকি ভাতাসহ পরিবহন শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ২০ হাজার টাকা ঘোষণা করার দাবি জানানো হয় সমাবেশে। সমাবেশে শ্রমিক নেতা আব্দুর রাজ্জাক, আহসান হাবীব বুলবুল, জামাল উদ্দিন, রুবেল মিয়া, শাহিন আলম, জুয়েল শিকদার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আরও পজ়ুন: অযোধ্যা শুধুই হিন্দুদের, অযোধ্যা মামলায় মত আইনজীবীর

so তাঁরা বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে শুধু পথচারীরা উদ্বিগ্ন নন, চালকরাও উদ্বিগ্ন। তারপরও যে সড়ক আইন কার্যকর করা হয়েছে সেখানে শুধু চালকদের শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে। মালিকদের শাস্তির আইন করা হয়নি। চালকদের জেলে দেবেন, জরিমানা করবেন, আবার লাইসেন্সের পয়েন্ট কেটে তা বাতিল করবেন। শুধু চালকরা দোষী কেন? নকশা ত্রুটির কারণে সড়কে দুর্ঘটনা ঘটে। এজন্য যারা সড়ক পরিবহনের সাথে জড়িত তাদের ও কিছু ট্রাফিক পুলিশের কারণে দুর্ঘটনা ঘটে। তাদেরও শাস্তির আওতায় আনতে হবে। সড়ক পরিবহন আইনে চালকদের অধিকার সংরক্ষণ করা হয়নি। যে আইন করা হয়েছে তা মাথায় নিয়ে চাকরি করা সম্ভব না। এটা কালো আইন।

so শ্রমিক নেতা আব্দুর রাজ্জাক বলেন, একের পর এক শ্রমিকের ওপর অন্যায় আইন চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু মালিকদের বিরুদ্ধে কোনও আইন করা হয়নি। ড্রাইভাররা ইচ্ছাকৃতভাবে খুন করলে ফাঁসি দিন। সবকিছুর আগে তাদের নিরাপত্তা দিয়ে গাড়ি চালাতে দিন। ড্রাইভারের হাতে শত শত মানুষের জীবন। তাদের অবস্থা বিবেচনা করুন। সকালে তারা গাড়িতে ওঠেন, কখন গাড়ি থেকে নামবেন তার ঠিক থাকে না। ঘরে চাল থাকে না, নিরাপদে ঘুমাতে পারেন না। এত কিছু মাথায় নিয়ে তারা গাড়ি চালান। সড়ক দুর্ঘটনা বন্ধ করতে চাইলে চালকদের মানুষ মনে করুন। পরিবহন শ্রমিকদের সুরক্ষার দাবি শ্রমিক ইউনিয়নের

ক্লিক করে পড়ুন ‘সাতসকাল’ ই-খবরের কাগজ

The post satsakal 12-05-2021 appeared first on satsakal.com.