সুন্দরবনের নদীপথে বুস্টার ডোজ নিয়ে স্বাস্থ্যকর্মীরা হাজির

শ‍্যাম বিশ্বাস, উওর ২৪ পরগনা।
অবশেষে প্রতীক্ষার অবসান বুস্টার ডোজ চালু হলো বসিরহাটের স্বাস্থ্য জেলায়। সীমান্ত থেকে সুন্দরবন এই মহাকুমায় দশটি ব্লকের সুন্দরবন হিঙ্গলগঞ্জ, সন্দেশখালি, হাসনাবাদ, মিনাখা, বাদুড়িয়া, স্বরূপনগর, বসিরহাট সহ দশটি ব্লকে ১৩০টি, ভ্যাক্সিনেশন কেন্দ্রে ডোজ দেয়া শুরু হল। এদিন সকাল থেকে সরকারি সময় অনুযায়ী সুন্দরবনের রায়মঙ্গল, বেতনী, ইচ্ছামতী, কালিন্দী, ছোট কলাগাছি সহ একাধিক নদীমাতৃক এলাকায় ৫০  থেকে ৬০, জন স্বাস্থ্যকর্মীরা, লঞ্চ, নৌকা, ভটভটি নিয়ে তাদের যে নিজস্ব কেন্দ্রে বুস্টার ডোজ নিয়ে হাজির হন। পাশাপাশি নদীর পাড়ের বাসিন্দা ষাটোর্ধ্ব মরণব্যাধি আক্রান্ত রোগীদের বুস্টার ডোজ শুরু হল। পাশাপাশি করোনার যোদ্ধা চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী পুলিশ-সাংবাদিক তাদের ও বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু করল। এই কর্মসূচি চলবে বলে জানিয়েছেন বসিরহাটের স্বাস্থ্য জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক চিকিৎসক রবিউল ইসলাম গায়েন।
 তিনি বলেন, সীমান্ত থেকে সুন্দরবন জলপথে স্বাস্থ্যকর্মীরা বিভিন্ন এলাকায় সুন্দরবন বাসিকে বুষ্টার্ড ডোজ দেওয়া শুরু করল। সাধারণ নাগরিক যাদের বয়স ৬০,উদ্ধ, ব্যক্তিদের ক্যান্সার হাপানি ডায়বেটিস সহ মরণব্যাধি আক্রান্ত  নাগরিকরা এই বুস্টার ডোজ পাবেন। সবমিলিয়ে বুস্টার ডোজ চালু হাওয়াই খুশি করোনা যোদ্ধা থেকে শুরু করে ষাটোর্ধ্ব মরণব্যাধি আক্রান্ত রোগীরা।
তার পাশাপাশি এই জেলায় ১৫,থেকে ১৮ বছর বয়সী ৪২,০০০ ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। আগামী ১০, দিনের মধ্যে এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার , ভ্যাকসিন দেয়ার কাজ সম্পন্ন হবে। এমনটাই জানালেন মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক।

টাচ করুন, দেখুন আপনার প্রিয় অভিনেত্রীদের অসংখ্য ফটো